সংসদে দাঁড়িয়ে চীনকে কড়া বার্তা দিলেন রাজনাথ সিং

ভারত যুদ্ধ চায় না। শান্তিপূর্ণভাবে চীনের সঙ্গে সীমান্ত সমস্যার সমাধান চায়। তবে দেশের সার্বভৌমত্ব নষ্ট হলে ভারত কড়া জবাব দিতেও প্রস্তুত বলে সংসদে জানিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

সার্বভৌমত্বের প্রশ্নে ভারত সামান্যতম জমিও ছাড়তে রাজি নয় বলেও জানিয়েছেন তিনি।

করোনাকালে ভারতীয় সংসদের বিশেষ বর্ষাকালীন অধিবেশনের আয়োজন করা হয়েছে। ২০ দিনের অধিবেশনে মঙ্গলবার ছিল দ্বিতীয় দিন। পূর্বঘোষণামতো এদিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লাদাখ সংঘাত নিয়ে সংসদকে তাঁর অভিমত জানান।

রাজনাথের অভিযোগ, ১৯৬০ সালে চীন এবং ভারতের সীমান্ত বিষয়ে যে চুক্তি হয়েছিল, চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি বারবার তা লঙ্ঘন করছে। নিয়ন্ত্রণরেখা পেরোনোর চেষ্টা করছে তারা। ভারতীয় সেনা তাদের প্রতিহত করছে।

তারই জেরে জুন মাসে গালওয়ানের ঘটনা ঘটে এবং এখন প্যাংগংয়ের উত্তর এবং দক্ষি্ণ প্রান্তে সংঘর্ষ চলছে। গালওয়ানের ঘটনায় ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছিল। চীন কোনো হতাহতের কথা জানায়নি।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, ভারত যুদ্ধ চায় না। শান্তিপূর্ণভাবে এই সমস্যার সমাধান চায়। কিন্তু দেশের সার্বভৌমত্ব নষ্ট হলে ভারত কড়া জবাব দিতেও প্রস্তুত। সীমান্তে দেশের সেনাবাহিনী সে কাজই করেছে এবং করছে।

একই সঙ্গে রাজনাথ জানিয়েছেন, মস্কোয় চীনের প্রতিনিধিদের এ কথাই বলে এসেছেন তিনি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

রাজনাথের অভিযোগ, ১৯৯৩ এবং ১৯৯৬ সালে সীমান্ত নিয়ে চীনের সঙ্গে ভারতের যে চুক্তি হয়েছিল, তা-ও লঙ্ঘন করছে চীন। এ বিষয়েও চীনকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে। তবে প্রতিরক্ষামন্ত্রী একাধিকবার জানিয়েছেন, যুদ্ধ নয়, আলোচনার মাধ্যমেই সমস্যার মীমাংসা করতে চায় ভারত।

Sharing is caring!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *